সরাসরি যুদ্ধ লেগেছে বেনজামা-মেসির

মেসির কাছে ফিফা দ্য বেস্টের পুরস্কার হারানো মানতেই পারছেন না কারিম বেনজেমা। ফিফার প্রেস্টিজিয়াস অ্যাওয়ার্ড হাত ছাড়া হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একের পর এক আলোচিত পোস্ট দিয়ে চলেছেন ফরাসি তারকা। তার

পক্ষে দাঁড়িয়েছেন ইকার ক্যাসিয়াস। ফেভারিট হয়ে এসেছিলেন কাতারে, বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফিরেছেন আর্জেন্টিনায়। স্বাভাবিকভাবেই তাই ফিফা দ্য বেস্টের দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন লিওনেল মেসি।হয়েছেও তাই। দ্বিতীয়বারের মতো এল

এমটেনের হাতেই উঠেছে ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলারের ট্রফি। হাসিমুখে মেসির অর্জন, ক্লাব সতীর্থ কিলিয়ান এমবাপ্পে মেনে নিলেও পারছেন না শর্ট লিস্টে থাকা আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী কারিম বেনজেমা। ভোটের হিসাবে যিনি হয়েছেন দ্বিতীয়।

প্যারিস নাইটের দুদিন পার না হতেই এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একের পর এক আলোচিত পোস্ট করে চলেছেন রিয়াল তারকা। সবশেষ, গত বছর ফ্রান্স ও রিয়ালের হয়ে তার সব অর্জনের তালিকা নিয়ে ফ্যানের পোস্ট করা

একটি ছবি শেয়ার করেছেন টুইটারে।বেনজেমার অসন্তুষ্টির কারণও আছে। গেলো বছর এক বিশ্বকাপ ছাড়া সম্ভাব্য প্রায় সবকিছুই পেয়েছেন বিগ বেঞ্জ। ফ্রান্সের হয়ে নেশন্স লিগ, রিয়ালের হয়ে জিতেছেন লা লিগা, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, স্প্যানিশ ও

ইউরোপিয়ান সুপার কাপ। লা লিগা, স্প্যানিশ সুপার কাপ ছাড়াও ইউসিএলেও ছিলেন টপ স্কোরার। বিপরীতে ২০২২ সালে বিশ্বকাপ ও টুর্নামেন্ট সেরা ফুটবলার ছাড়া মেসির অর্জন পিএসজির হয়ে লিগ আঁ ও ফরাসি সুপার কাপ ট্রফি।

অবশ্য পুরস্কারের রাতেই আরও দুই পোস্ট করেছিলেন বেনজেমা। যার একটি ভিডিও ক্লিপ, যেখানে একজন বলছেন মিথ্যাবাদি, তুমিই মিথ্যাবাদি।মেসির হাতে ফিফা দ্য বেস্ট মানতে পারেননি ইকার ক্যাসিায়াসও। টুইটারে সাফ লিখেছেন,

ফুটবলে এসব পুরস্কারের কিছুই বুঝে আসে না তার।মেসি ইস্যুতে বিপাকে আরেক রিয়াল ফুটবলার ডেভিড আলাবা। ফিফা দ্য বেস্টের জন্য প্রথম পছন্দ হিসেবে মেসিকে ভোট দিয়ে লস ব্লাঙ্কোস সমর্থকদের তোপের মুখে অস্ট্রিয়ান অধিনায়ক।

তবে বেনজেমা ও ক্যাসিয়াসের অসন্তুষ্টি নিয়ে ভাবতে বয়েই গেছে মেসি ফ্যানদের। বিশ্বকাপ ও ফিফা দ্য বেস্টের পর এলএমটেনের আরেক ব্যালন ডি অর জয়ের উদযাপনের অপেক্ষায় কোটি ভক্ত।