সময়ের বিবর্তনে নিজেকে ব’দলে নজর কারা পারফমেন্স

বাংলাদেশ ক্রিকেটে অভিষেকের পর ক্যারিয়ারের শুরুতেই অনেক উত্থান-পতনের সাক্ষী পেসার এবাদত হোসেন। তবে সাম্প্রতিক সময়ে টাইগার ক্রিকেটে বড় ভরসার নাম হয়ে উঠেছেন এবাদত। লাল বলের পাশাপাশি সাম্প্রতিক সময়ে

সাদা বলেও দারুণ ছন্দে আছেন এবাদত। এরই মধ্যে টাইগার পেস বোলিং ওস্তাদ অ্যালান ডোনাল্ডের প্রিয় পাত্র বনে গেছেন এই পেসার।এবাদতকে নিয়ে সিলেটে বুধবার সংবাদ সম্মেলনে ডোনাল্ড বলেন, ‘সে তো কাঁপিয়ে দিচ্ছে! ঠিক এক

বছর আগে আমি ওকে (এবাদত) যখন সাউথ আফ্রিকায় দেখেছিলাম তখন থেকেই সে প্রভাবিত করে চলেছে। আপনি যদি জিজ্ঞেস করেন কোনো বিভাগে তার উন্নতির প্রয়োজন আছে কি না! সেটাই আমি খোঁজার চেষ্টায় আছি। তবে

আমার কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় হচ্ছে এবাদত সব সময় খেলার ভেতর নিজেকে সম্পৃক্ত রাখে।’সে প্রশংসার যোগ্য, সে অ্যাথলেট, কাজ করার জন্য দারুণ একজন। সে সিলেটের রকেট।অ্যালান ডোনাল্ড এবাদতের নতুন নামও

রাখলেন অ্যালান ডোনাল্ড। বলেন, ‘চার-ছয় খেলেও সে প্রতি ম্যাচেই উইকেট পাচ্ছে। কখনও কখনও সে ১৪৫-১৪৮ গতিতে বোলিং করছে, আপনি জানবেন এই গতি ম্যাচের কোনো না কোনো অংশে দলের কাজে আসবে। গত ম্যাচেও

এটা দেখা গেছে। সে প্রশংসার যোগ্য, সে অ্যাথলেট, কাজ করার জন্য দারুণ একজন। সে সিলেটের রকেট।’এবদতের সঙ্গে কাজ করতে ভালোবাসেন ডোনাল্ড, ‘আমি ওর সঙ্গে কাজ করতে ভালোবাসি, দারুণ প্রতিভাবান। এখন যে

অবস্থায় সে আছে, এটা সে অর্জন করে এসেছে। ৩ ফরম্যাটেই দলের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আমি শুধু ওর সঙ্গে না, সবার সঙ্গেই কাজ করছি। বিশেষ করে ট্যাক্টিকাল বিষয়গুলোর প্রতি বাড়তি মনোযোগ দিচ্ছি। তিন ফরম্যাটেই ম্যাচের বুদ্ধিমত্তা নিয়ে আমরা কাজ করছি, দল হিসেবে এই জায়গায় আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে।’