লিটন দাসের সমালোচকদের কঠিন জবাব দিলেন স্ত্রী সঞ্চিতা

টি-টোয়েন্টি বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দল ইংল্যান্ডকে ‘হোয়াইট ওয়াশ’ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। গতকাল মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জিতে ঐতিহাসিক সিরিজ জয় করে সাকিব বাহিনী।

বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে সিরিজ জয় আর সেই বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হোয়াইটওয়াশ করার তৃপ্তি একেবারেই অন্যরকম।টাইগারদের এই জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যান ও ডানহাতি ওপেনার লিটন দাস।

দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরি করে ফর্মে ফিরেছেন বাংলাদেশ দলের অন্যতম তারকা ওপেনার লিটন দাস।স্বামী যখন ২২ গজ কাঁপাচ্ছেন, ঠিক তখন তার স্ত্রী সঞ্চিতা সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘২২ গজ’ কাঁপাচ্ছেন। লিটন দাস সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে

তার হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করার সাথে সাথে তার স্ত্রী সঞ্চিতা তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন।তিনি লেখেন ‘কেউ একজন তো আছে যে নিজের নিঃশ্বাস বন্ধ করে বসে রয়েছে (অধীর আগ্রহে)। যার একমাত্র উদ্দেশ্য যাতে করে তুমি

(লিটন) সফল হও। তুমি নিশ্চিত কর (পারফরম্যান্সের মধ্যে দিয়ে) যাতে করে সমালোচকদের শ্বাস বন্ধ হয়ে আসে।অভিনন্দন জেবি। তোমার সবথেকে বড় ভক্ত।’ পাশাপাশি একটি ভালোবাসার ইমোজিও ব্যবহার করেছেন সঞ্চিতা।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজে লিটন যথাক্রমে ৭, ০, ০ রান করেছিলেন।এমনকী, ভারতের বিরুদ্ধেও একদিনের ক্রিকেট সিরিজে একেবারে রান করতে পারেননি। সেকারণেই সদ্য শেষ হওয়া টি-২০ সিরিজে টাইগারদের

হয়ে তাঁর জায়গা পাওয়া নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল।অবশেষে এই ৭৩ রানের ইনিংস কিছুটা হলেও সেই সমালোচনার জবাব দিল। লিটনের এই পারফরম্যান্সে স্বাভাবিকভাবেই খুশি হবেন আইপিএলে তাঁর ফ্রাঞ্চাইজি কলকাতা

নাইট রাইডার্সের কর্তা ব্যক্তিরা।এদিন মিরপুরের শের-এ-বাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের হয়ে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৫৭ বলে ৭৩ রান করেন লিটন। তাঁর ইনিংস সাজানো ছিল ১০ টি চার এবং একটি বিরাট ছয়ে। ১২৮.০৭ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট করেন তিনি।

৭৩ রান করার পরে ক্রিস জর্ডনের বলে ফিল সল্টের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। পাশাপাশি এদিন ৩৬ বলে ৪৭ রানের একটি দুর্দান্ত অপরাজিত ইনিংস খেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ফলে বাংলাদেশ তাদের নির্ধারিত ২০

ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান করতে সমর্থ হয়। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রানেই থেমে যায় ইংল্যান্ডের ইনিংস।ওপেনার ডেভিড মালান ৫৩ এবং অধিনায়ক জস বাটলার ৪০ ছাড়া আর কোন‌ও ব্যাটার বলার মতন রান পাননি। বাংলাদেশের হয়ে ২৬ রান দিয়ে দুই উইকেট নিয়ে ১৬ রানের জয় নিশ্চিত করেন তাসকিন আহমেদ।