‘মেসি খেলার সময় চোখের পাতা বেশি ফেললে অবিশ্বাস্য কিছু মিস করতে পারেন

বি’শ্বে’র প্র’ভা’ব’শা’লী এ’ক’শো ব্য’ক্তি’ত্’বে’র তা’লি’কা’য় জা’য়’গা ক’রে নি’য়ে’ছে’ন বি’শ্ব’চ্’যা’ম্’পি’য়’ন লি’ও’নেল’ মে’সি ও রা’না’র্স আ’প কি’লি’য়া’ন এ’ম’বা’প্পে। ‘টা’ই’ম ম্যা’গা’জিনে’র জ’রি’পে’র ফ’ল প্র’কা’শে’র প’র আ’র্জে’ন্’টা’ই’ন তা’র’কা’কে নি’য়ে রী’তি’ম’তো এ’ক’টি ক’লা’ম’ই লি’খে

ফে’লে’ছে’ন টে’নি’স কিং’ব’দ’ন্তী র’জা’র ফে’দে’রা’র। লি’ও’কে নি’য়ে কি লি’খে’ছে’ন ফে’ডে’ক্স? তি’নি নি’জে’ও এ’ক’জ’ন তা’র’কা। অ’নে’কে’র চো’খে’ই টে’নি’সে’র স’র্ব’কা’লে’র সে’রা। সে’ই’ র’জা’র ফে’দে’রা’রে’র কা’ছে ব’ল পা’য়ে লি’ও’নে’ল মে’সি এ’ম’ন এ’ক শি’ল্পী। যা’কে উ’প’ভো’গ

ক’রা যা’য়, মা’পা যা’য় না। – গো’ল’ড’ট’ক’ম টে’নি’স কিং’ব’দ’ন্’তী র’জা’র ফে’দে’রা’র ব’লে’ন, মে’সি’র গো’ল ক’রা’র রে’ক’র্’ড ও শি’রো’পা জ’য় নি’য়ে ন’তু’ন ক’রে ম’নে ক’রি’য়ে দে’য়া’র কি’ছু’ই নে’ই। ৩৫ ‘ব’ছ’রে’র মে’সি’র যে বি’ষ’য়’টা আ’মা’কে আ’ক’র্’ষণ ক’রে তা হ’ল এ’ত ব

ছ’র ধ’রে শ্’রে’ষ্’ঠ’ত্ব ধ’রে রা’খা। এ’টা অ’র্’জন ক’রা য’ত’টা ক’ঠি’ন, ধ’রে রা’খা আ’র’ও বে’শি। ও জা’দু’ক’রের’ ম’ত ড্’রি’ব’ল ক’রে। ও’র কো’না’কু’নি’ পা’স শি’ল্’পের ম’তো। ও’র স’জা’গ দৃ’ষ্টি ও অ’নু’মা’নে’র ক্’ষ’ম’তা’ বোধ’গ’ম্’যে’র বা’ই’রে।প্রা’য় দু’ই যু’গ ধ’রে’ টে’নি’সে’র শী’র্ষ স্ত’রে’ খে’লে’ছে’ন

ফেদেরার। তাই জানেন সেরা হওয়ার চাপ কতটা। মেসির কাতার বিশ্বকাপ জয় তাই অনন্য ফেডেক্সের কাছে।টেনিসের এ কিংবদন্তী বলেন, মাত্র আমার ক্যারিয়ার শেষ হলো। এখন আমি বুঝি আমরা অ্যাথলেটরা কতটা চাপ নিয়ে চলি। যদিও প্রাত্যহিক

জীবনে তা উপলব্ধি করি না। মেসির মত একজন ফুটবলারের ক্ষেত্রে এর পরিধি আরও বেশি। সে বিশ্বের স্বনামধন্য ক্লাব ও ফুটবল পাগল একটা দেশের প্রতিনিধিত্ব করে। আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয় ছিল অসাধারণ। পুরো বিশ্ব তা দেখেছে। যারা ফুটবল

প্রেমী নন, তারাও বুঝেছেন বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলার প্রভাব কতটা।২০ গ্র্যান্ডস্লাম জিতে গেল বছর থেমেছিলেন সুইস সুপারস্টার। অধরা বিশ্বকাপটা জেতা হয়ে গেছে মেসিরও। তবে ফেদেরার চান আরও কটা দিন চলুক মেসি শো। তার শৈশবের

হিরো ম্যারাডোনা-বাতিস্তুতার মতো নতুন প্রজন্মের চোখে স্বপ্ন বুনে যাক লিও।সুইস টেনিস কিংবদন্তী বলেন, শৈশবে দিয়াগো ম্যারাডোনা ও গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা আমার ফেভারিট আর্জেন্টাইন খেলোয়াড় ছিলেন। আমি ভাগ্যবান তাদের সঙ্গে দেখা

করতে পেরেছি। তারা আমাকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে। এখন মেসি ভবিষ্যত প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করছেন। আমি শুধু ওর সৃজনশীল ও শৈল্পিক খেলা আরও কিছু দিন দেখতে চাই। মেসি যখন খেলে, খুব বেশি চোখের পলক ফেলবেন না, তাহলে আপনি হয়তো আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা মানুষটার অসাধারণ কোন মুহূর্ত মিস করে ফেলতে পারেন। ধন্যবাদ লিও।