মাত্র পাওয়াঃ একসঙ্গে বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের সুযোগ মেসি-নেইমার-এমবাপ্পের সামনে

লিওনেল মেসি, নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপ্পে তিনজন তিন দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে প্রতিনিধিত্ব করে থাকেন। মেসি ও এমবাপ্পে ইতোমধ্যে বিশ্বকাপ শিরোপা ছুঁয়ে দেখলেও নেইমারের সে সৌভাগ্য হয়নি। তবে এবার ফুটবলের সর্বোচ্চ

নিয়ন্ত্রক সংস্থা (ফিফা) সুযোগ করে দিয়েছে তিনজনকে একদলের হয়ে একসঙ্গে বিশ্বকাপ তুলে ধরার সুযোগ। ৩২ দলের সে বিশ্বকাপে মেসি, নেইমার, এমবাপ্পে একসঙ্গে জিততে পারেন সোনার ট্রফিটি। কিন্তু কিভাবে সেটি সম্ভব। আসুন

জেনে নেই। বয়সের শুরুতেই গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ খ্যাত ফুটবল বিশ্বকাপের শিরোপা হাতে উঠেছে ফ্রান্স তারকা এমবাপ্পের। আর ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে এসে বিশ্বকাপ ট্রফি উঁচিয়ে ধরেছেন মেসি। কিন্তু সোনার ট্রফি ছোঁয়া হয়নি নেইমারের।

তবে এবার সুযোগ এসেছে একটি বিশ্বকাপ এই তিনজন একসঙ্গে উঁচিয়ে ধরার। ২০২৫ সালে ফিফা আয়োজন করবে ৩২ দলের ক্লাব বিশ্বকাপ। এতদিন ছোট আকারে ৭ দলের বিশ্বকাপ হওয়ায় এটি নিয়ে উত্তেজনা কম ছিল। কিন্তু প্রতি তিনবছরে

এবার ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ হওয়ায় এর উত্তেজনা দ্বিগুণ বৃদ্ধি পাবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এদিকে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পে এ তিন ত্রয়ীকে ক্লাব পিএসজি ছাড়তে রাজি না। সুতরাং তারা তিনজন যদি ২০২৫ সাল পর্যন্ত ক্লাবটিতে থাকেন

তাহলে সুযোগ থাকবে প্রথমবার আয়োজিত ৩২ দলের আয়োজনে ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের। কাতার বিশ্বকাপ চলাকালীন ফাইনালের আগে বড় পরিসরে ক্লাব বিশ্বকাপ আয়োজনের ঘোষণা করেন ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

তিনি বলেন, আমরা কয়েক বছর আগে ২৪টি দল নিয়ে একটি নতুন ক্লাব বিশ্বকাপ আয়োজন করতে চেয়েছিলাম। এটি ২০২১ সালে হওয়া উচিত ছিল। কিন্তু করোনার কারণে স্থগিত ছিল। তাই নতুন ক্লাব বিশ্বকাপ ২০২৫ সালে অনুষ্ঠিত হবে এবং

এতে ৩২টি দল থাকবে। তিনি আরও বলেন, বিশ্বের সেরা দলগুলোই এখানে খেলার সুযোগ পাবে। অবশ্য আমাদের আরও বিস্তারিত আলোচনার প্রয়োজন আছে। তবে ৩২ দলের এই টুর্নামেন্টটি নিঃসন্দেহে আয়োজন হবে। এটি সত্যিই বিশ্বকাপের

মতোই হবে। বর্তমানে ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে এসেও বেশ ফিট রয়েছেন লিওনেল মেসি। আর নেইমারের বয়সও খুব আহামরী নয়। পাশাপাশি বড় সময়ের কন্ট্রাক্টে পিএসজিতে আছেন এমবাপ্পে। সুতরাং ২০২৫ সাল পর্যন্ত চাইলেই সবাই ইউরোপিয়

ফুটবলে টিকে থাকতে পারে। আর ক্লাব পর্যায়ে এই বড় আয়োজনের সাক্ষী হতে পারে ইতিহাস গড়ে। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক যদিও ফিফার তিনটি ক্লাব বিশ্বকাপ ইতোমধ্যেই জিতেছেন। কিন্তু ৩২ দলের বিশাল টুর্নামেন্টে জয়টা বাড়তি প্রাপ্তি হবে যে কারো কাছে।