ব্রেকিং নিউজঃ মেসিদের নতুন কোচ হচ্ছেন জিদান

সাম্প্রতিক সময়ে ফরাসি জায়ান্ট পিএসজি একঝাঁক তারকা ও পেট্রোডলারে গড়া দল নিয়ে একের পর এক ব্যর্থতা উপহার দিয়ে যাচ্ছে। সর্বশেষ ম্যাচে মেসি-এমবাপ্পের মত তারকা ফুটবলার নিয়েও ইতালিয়ান ক্লাব এসি মিলানের

কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নিয়েছে তারা।ফুটবল বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী কাতার মালিকানাধীন ফরাসি ক্লাব পিএসজি দলের এমন শোচনীয় অবস্থার জন্য সবার আগে আঙুল উঠেছে কোচ ক্রিস্তফ গ্যালতিয়ের দিকে।

তবে এমত অবস্থায় দলের তারকা প্লেয়ার লিওনেল মেসি ও কিলিয়ান এমবাপেরা বাদ যাচ্ছে না অন্য কোন কিছু। এরই মধ্যে গুঞ্জন উঠেছে পিএসজিতে গ্যালতিয়ের অধ্যায় হয়ে গেছে। ইতোমধ্যে তার বিকল্পও খুঁজে নিয়েছে ক্লাবটি।

সাম্প্রতিক ক্রীড়াভিত্তিক স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা বলছে, যদি বর্তমান কোচের বিদায় নিশ্চিত হয়, তাহলে পরবর্তী সময়ে জিদানের কথা ভাবা হচ্ছে। কেবল সমর্থকদের চাহিদার কারণে জিদানকে এগিয়ে রাখা হচ্ছে এমনটি নয়।

জিদান চেয়েছিলেন ফ্রান্সের জাতীয় দলের কোচ হতে, কিন্তু সেই সুযোগ এখন না থাকায় পিএসজি শিবিরে ফেরার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায়ের পর গ্যালতিয়ের বিদায় কাঙ্ক্ষিত হলেও সে বিষয়ে

আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কিছু জানায়নি নাসের আল খেলাইফির ক্লাব। তার পরিবর্তে জিদানকে আনার গুঞ্জন আগে থেকেই চলমান রয়েছে। কিন্তু দলের এমন নাজেহাল পরিস্থিতিতে সেই আলোচনাই আরও জোরালো করে তুলেছে মার্কা।

সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয়, তারকা খচিত দলে বেশ পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে পিএসজি। দলের পরীক্ষিত তারকাদের ওপর তারা আর নির্ভর করতে রাজি নয়। তাই এমবাপেকে সঙ্গ দিতে ১৬ বছর বয়সী জায়েরে এমেরি ও ১৭ বছর

বয়সী সেন্টার-ব্যাক চাদায়েল বিটশিয়াবুকে মূল দলে আনার কথা ভাবছে ক্লাবটি। তবে এত তারকা নিয়েও কেন সফলতার দেখা মিলছে না, সে বিষয়টিও তারা খতিয়ে দেখছে।এর আগেও জিদানকে নিয়ে ফ্রান্স জাতীয় দল ও পিএসজির

দায়িত্ব নেওয়ার বিষয়ে আলোচনা তৈরি হয়েছিল। তবে তিনি চেয়েছিলেন জাতীয় দলের ডাগআউটে ফিরতে। কিন্তু দলটির কোচ দিদিয়ের দেশমকে পুনরায় দায়িত্বে রাখায় তার সেই আশা পূরণ হয়নি। এরপর ব্রাজিল জাতীয় দল, পিএসজি

ও ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্তাসে তিনি যোগ দিতে পারেন বলে শোরগোল ওঠে। কিন্তু ভাষাগত জটিলতায় ব্রাজিল ও জুভেন্তাসে তার ফেরা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়।কেবল তাই নয়, ভাষাগত দুর্বলতার কারণে ইংল্যান্ড বা জার্মানিতেও

যাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। অন্যদিকে রিয়াল মাদ্রিদে যাওয়ার বিষয়টিও অনিশ্চিত। ফলে ঘুরেফিরে ফরাসি ক্লাবটিই আলোচনায় থাকছে। ৫০ বছর বয়সী ফ্রান্সের সাবেক বিশ্বজয়ী তারকা তার ভবিষ্যত গন্তব্য হিসেবে কোন ক্লাবকে বেছে নেন এখন সেটিই দেখার বিষয়!