বিসিবির সকল অবহেলার প্রতিশোধ, বুড়ো হারের কামাল দেখিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসে দ্রুততম সেঞ্চুরির মুশফিকুর রহিম

আয়ার‌ল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে নিজেদের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহের রেকর্ড গড়েছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচে হৃদয়রা ছাড়িয়ে গেলো আগেরটাও। ম্যাচে মুশফিকের নবম সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৪৯ রান। একদিনের

ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সংগ্রহ এটি।সোমবার (২০ মার্চ) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান আইরিশ অধিনায়ক অ্যান্ড্রু বালবির্নি। তামিম ইকবাল আর

লিটন দাস শুরুটা করেছিলেন বেশ দেখেশুনে।১০ ওভারে স্কোর বোর্ডে ৪২ রান জমা করে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল।তামিম ৩১ বলে ২৫ রান করে সাজঘরে ফেরার আগে দেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৫

হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন।তামিম আউট হওয়ার পর লিটন কুমার দাস ফিফটি পূর্ণ করার মধ্য দিয়ে ওয়ানডেতে দেশের নবম ক্রিকেটার হিসেবে ২ হাজারি ক্লাবের সদস্য হন।
২৫.৬ ওভারে দলীয় ১৪৩ রানে সাজঘরে ফেরেন লিটন। তার

আগে ৭১ বলে তিন চার আর সমান ছক্কার সাহায্যে খেলেন ৭০ রানের ঝলমলে ইনিংস।শনিবার আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৩৩৮ রানের রেকর্ড গড়ে ১৮৩ রানের রেকর্ড জয়ের ম্যাচে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৯৩ রান করেছিলেন সাকিব

আল হাসান। সোমবার দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি সাকিব।এদিন তিনি ফেরেন ১৯ বলে দুই চারে ১৭ রানে।সাকিব আউট হওয়ার পর উইকেটে বেশি সময় টিকতে পারেননি নাজমুল হোসেন শান্ত। ৩২.২ ওভারে দলীয় ১৯০

রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরেন শান্ত। তার আগে ৭৭ বলে তিন চার আর দুই ছক্কা করেন ৭৩ রান।দুর্দান্ত ব্যাটিং করেও আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়লেন তাওহিদ হৃদয়। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৯২ রানের ইনিংস খেলার পর সোমবার

৪৯ রানের ঝড়ো ব্যাটিং করে ফেরেন তাওহিদ। এদিন ৩৪ বলে চার বাউন্ডারি আর এক ছক্কার সাহায্যে নিজের ইনিংস খেলার পর উইকেটের পেছনে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন হৃদয়।হৃদয় আউট হওয়ার পর ৭ বলে ৭ রানে ফেরেন ইয়াসির আলী।

ইনিংসের শেষ বল পর্যন্ত খেলে মাত্র ৬০ বলে ১৪টি চার আর ২টি ছক্কার সাহায্যে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মুশফিকুর রহিম। তার সেঞ্চুরির সুবাদে ৬ উইকেটে ৩৪৯ রানের রেকর্ড গড়ে টাইগাররা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ ৫০ ওভারে ৩৪৯/৬