বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টির বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ৩-০তে সিরিজ জিতে নিয়েছে টাইগাররা। চট্টগ্রামে প্রথম টি-টোয়েন্টির পর মিরপুরে দ্বিতীয় ও তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতেও

ইংলিশদের নাকানিচুবানি খাওয়ায় সাকিব-শান্ত-লিটনরা। মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) মিরপুরে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডকে ১৬ রানে হারায় বাংলাদেশ। আগে ব্যাট করে ২ উইকেটে ১৫৮ রান তুলে লিটন-শান্তরা। জবাবে ৬

উইকেটে হারিয়ে ১৪২ রানে থামে সফরকারিদের ইনিংস। এর আগে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে ওপেনার লিটন দাসের ঝড়ো ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান সংগ্রহ করে সাকিব আল হাসানের দল।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে পাওয়ার প্লের প্রথম দুই ওভারে উড়ন্ত সূচনা করে দুই টাইগার ওপেনার। স্যাম কারান ও ক্রিস ওকসের করা দুই ওভারে বিনা উইকেটে ১৯ রান তুলে লিটন দাস ও রনি তালুকদার। তৃতীয় ওভারে বল করতে আসা লেগ

স্পিনার আদিল রশিদ দুই টাইগার ব্যাটারকে তার ঘূর্ণিতে জাদুতে কিছুটা অস্বস্তিতে ফেলেন। চতুর্থ ওভারে আবারও নতুন বোলারের হাতে বল তুলে দেন ইংলিশ অধিনায়ক। পেসার জফরা আর্চারের করা ওভারে এক চারে ৮ রান তুলেন লিটন

দাস। আদিল রশিদের করা পঞ্চম অভারেও সাবলীল ব্যাটিং করতে থাকে লিটন ও রনি। পাওয়ার প্লে শেষে ৬ ওভারে বিনা উইকেটে ৪৬ রান তুলেছে বাংলাদেশ। তবে ইনিংসের অষ্টম ওভারে ব্যক্তিগত ২৪ রান করে আদিল রশিদের বলে তারই হাতে

ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন ওপেনার রনি তালুকদার। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে শান্ত ও লিটন দেখেশুনে খেলতে থাকে টাইগাররা। ১৩তম ওভারে সিরিজের প্রথম অর্ধশতকের দেখা পেয়ে যান লিটন। বাঁহাতি ব্যাটার নাজমুল শান্তকে নিয়ে ইংলিশ

বোলারদের উপর চড়াও হন টাইগার ওপেনার। আগের দুই ম্যাচে ছন্দহীন এ ডানহাতি ব্যাটার নিজের সরূপে ফিরেছেন।তার বিধ্বংসী ৫৭ বলে ৭৩ রানের ইনিংসে বড় সংগ্রহের ভীত পেয়ে যায় টাইগাররা। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ২

উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রান সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। নাজমুল হোসেন শান্ত করেন ৩৬ বলে ৪৭ রান। রনির ব্যাট হতে আসে ২৪ রানের অনবদ্য ইনিংস। ইংলিশদের হয়ে ২৩ রানে ১ উইকেট নেন আদিল রশিদ।