প্রথম ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। স্বাগতিকরা একাদশ সাজিয়েছে তিন স্পিনার ও দুই পেসার দিয়ে।বুধবার (১ মার্চ) মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ১২টায়।

খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টিভি ও টি-স্পোর্টস।দু’দলের ওয়ানডে পরিসংখ্যানে অনেকটা এগিয়ে ইংল্যান্ড। তবে ব্যাটার ও বোলারদের লড়াইয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। এখনো আছেন সাকিব, তামিম, মুশফিক,

মাহমুদউল্লাহরা। যাদের অভিজ্ঞতায় ভরসা বাংলাদেশের। ২০১১ বিশ্বকাপে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বমঞ্চে নতুন যুগের সূচনা করেছিল বাংলাদেশ। সেই ধারাবাহিকতায় পরের বিশ্বকাপে অ্যাডিলেডে আরো একবার আধিপত্য টাইগারদের।

গ্রুপ পর্ব থেকে ইংলিশদের বিদায় আর প্রথমবার কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ।হারের তিক্ততায় নিজেদের ভেঙ্গে নতুন করে গড়েছে মরগ্যানের দল। ফলাফল ২০১৯ বিশ্বকাপ শ্রেষ্ঠত্ব। দু’দলের পার্থক্যটা এখানেই স্পষ্ট। ২১ দেখায় অনেক এগিয়ে

ইংল্যান্ড। জিতেছে ১৭ ম্যাচ। বাংলাদেশ মাত্র ৪টি। যার দুইটি হোমে।ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের সবগুলো জয়ই এসেছে ২০১০ সালের পর। শেষটা মিরপুরে। সিরিজ হারলেও ২০১৬র সেই জয় এবারের আত্ববিশ্বাস।দু’দলের লড়াইয়ে সর্বাধিক

রানের তালিকায় আধিপত্য বাংলাদেশ ব্যাটারদের। সেরা সাতের ৫ জনই টাইগার ব্যাটার। এই সিরিজেও আছেন তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ।
বোলারদের তালিকায় সেরা ছয়ে সমানে সমান। ১৭ উইকেট

নিয়ে শীর্ষে মাশরাফী বিন মর্তুজা। ইংল্যান্ডের আদিল রশিদ আর টাইগারদের হয়ে সাকিব আল হাসানের সুযোগ থাকছে নিজেদের রেকর্ড সমৃদ্ধ করার। মাত্র ৪ ম্যাচে ১১ উইকেট আদিলের।

বাংলাদেশ স্কোয়াড
তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসাইন শান্ত, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, তাইজুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

ইংল্যান্ড স্কোয়াড
জেসন রয়, ফিল সল্ট, ডেভিড ম্যালান, জেমস ভিন্সি, জস বাটলার (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), উইল জ্যাক, মঈন আলী, ক্রিস ওকস, আদিল রশিদ, মার্ক উড ও জোফরা আর্চার।