তৌহিদ হৃদয়কে অভিষেক করে নাসিরের কপাল পুড়িয়ে ইংরেজদের বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টির জন্য একাদশ ঘোষনা করলো বাংলাদেশ

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হতে যাচ্ছে তৌহিদ হৃদয়ের, এটা প্রায় নিশ্চিত। সেই সাথে ৮ বছর পর আবারও লাল সবুজের জার্সি গায়ে মাঠে নামার সুযোগ পেতে যাচ্ছেন ওপেনার রনি তালুকদার।বোলিং ডিপার্টমেন্টে

অভিজ্ঞরাই থাকছেন। তিন পেসার আর দুই স্পিনিং অলরাউন্ডার নিয়ে একাদশ হবার সম্ভাবনা বেশি। আর শেষ ওয়ানডের উইকেটেই হবে এই ম্যাচটি।প্রথমবার টি-টােয়েন্টিতে ডাক পেয়েছেন তৌহিদ হৃদয়, রেজাউর রহমান রাজা ও

তানভির ইসলাম। দ্বিতীয়বার ডাক পেয়েছেন দু’জন। ২০১৬ সালে এক ম্যাচ খেলে বাদ পড়া রনি তালুকদার আর অফ ফর্মে বাদ পড়া শামীম পাটোয়ারী।প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে এই ৫ জনের মধ্যে কারা সুযোগ পাবেন একাদশে। টিম সূত্রে কিছু

তথ্যনুসারে আর অনুশীলন থেকে বোঝা যাচ্ছে রনি তলুকদার ও তৌহিদ হৃদয়ের খেলার সম্ভাবনা খুব বেশি।অনুশীলনের শুরুতেই লিটন ও শান্ত সাথে এই দু’জনকে অনুশীলন করিয়েছেন কোচ। ওপেনিংয়ে লিটনের সঙ্গী হতে পারেন রনি।

নম্বর তিনে শান্ত, চারে সাকিব আর ৫ নম্বরে জায়গা হতে পারে হৃদয়ের। জাতীয় দলে হৃদয়কে যে মিডল অর্ডারে খেলতে হবে আগেই জানিয়ে দিয়েছিল নির্বাচকরা।ছয় নম্বরে আফিফ হোসেন আর সাত নম্বরে লড়াইটা হবে নুরুল হাসান

সোহান ও শামীম পাটোয়ারীর মধ্যে। তবে সোহানকে হয়তো আগে দেখতে চাইবেন হেড কোচ হাথুরুসিংহে।৮ নম্বরে মেহেদী মিরাজ আর শেষের তিন স্লপ পেসারদের জন্য বরাদ্দ। যেখানে সুযোগের সম্ভাবনা নেই রেজাউর রহমান রাজার। তবে

দুই পেসার নিয়ে একাদশ গড়লে লড়াইটা হবে নাসুম ও তানভিরের মধ্যে।একাদশ কেমন হবে তাতে বড় অবদান রাখবে উইকেট। জহুর আহমেদের স্পোর্টিং উইকেটই থাকছে। তৃতীয় ওয়ানডের পিচেই হবে প্রথম টি-

টোয়েন্টি। উইকেট দেখে চান্দিকা হাথুুরুসিংহে নিশ্চিত করেছেন সেই কথা। কিন্তু এই একাদশের মধ্যে নাসিরের কোন কথাই আসিনি। এত ভাল পারফর্ম করার পরও নির্বাচকদের নজরে আসিনি নাসির।