তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে মে মাসে ইংল্যান্ড যাবে টাইগাররা

সফরটি হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালে। সেবার করোনাভাইরাসের কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সুপার লিগের অ্যাওয়ে সিরিজ খেলতে চলতি বছর মে মাসে উড়াল দেবে বাংলাদেশ। তবে নিজেদের মাঠে আয়োজন

না করে বাংলাদেশকে আইরিশরা আতিথেয়তা দিবে ইংল্যান্ডের চেমসফোর্ডে। আয়ারল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ওয়ারেন ডিউট্রম ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই খবর নিশ্চিত করেছেন।

এসেক্স ক্রিকেট ক্লাব দুই দেশের এই সিরিজ আয়োজন করবে। ৯ মে চেমসফোর্ডে শুরু হবে প্রথম ওয়ানডে। ১২ মে একই ভেন্যুতে দ্বিতীয় ওয়ানডে হবে দিবারাত্রির। ১৪ মে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি আবার হবে দিনের আলোয়।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের আগে কেমব্রিজে ৭ মে একটি ওয়ার্মআপ ম্যাচও খেলবে বাংলাদেশ দল। ওয়ার্মআপ ম্যাচের প্রতিপক্ষ এখনো ঠিক হয়নি।এদিকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ শেষ না হতেই বাংলাদেশে এসেছে আয়ারল্যান্ড।

আগামীকাল সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে আয়ারল্যান্ড-বাংলাদেশের প্রথম ওয়ানডে। একই ভেন্যুতে ২০ ও ২৩ মার্চ হবে বাকি দুই ওয়ানডে। ২৭ মার্চ থেকে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে তিন ম্যাচের

টি-টোয়েন্টি সিরিজ। সিরিজের বাকি দুই ম্যাচ ২৯ ও ৩১ মার্চ। ৪ এপ্রিল থেকে মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে হবে একমাত্র টেস্ট।মাসখানেক পরই ফিরতি সফরে যাবে বাংলাদেশ। মে মাসের শুরুতে ইংল্যান্ডে বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ডের সিরিজটি ওয়ানডে সুপার লিগের অংশ। এই সিরিজ দিয়েই ওয়ানডে সুপার লিগের চক্র শেষ করবে তামিম ইকবালের দল।