চরম দুঃসংবাদঃ হার্ট অ্যাটাকে না ফেরার দেশে চলে গেলেন তারকা অলরাউন্ডার,১০ দিনে তিন ক্রিকেটার হারালো ভারত

খেলার মাঠেই খেলোয়াড়দের মৃত্যু নতুন ঘটনা নয়। এমন এক ঘটোনা ঘটলো ভারতে। ভারতে খেলার মাঠে আরও এক ক্রিকেটারের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। গতকাল ২৬ ফেব্রুয়ারি শনিবার দেশটির আহমেদাবাদ রাজ্যে একটি ম্যাচে খেলার সময় হার্ট

অ্যাটাকে না ফেরার দেশে চলে যায় বসন্ত রাঠৌর নামের এক ক্রিকেটার।দেশটির এক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, “বসন্ত রাঠৌর বল করার সময় হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হন। পরে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে

ঘোষণা করেন। এ নিয়ে দেশটির গুজরাটে ১০ দিনে তিন ক্রিকেটার মারা গেলেন।”গুজরাটের পণ্য পরিষেবা কর (জিএসটি) দপ্তরের কর্মী ছিলেন ৩৪ বছর বয়সী বসন্ত। ক্রিকেটকে অনেক ভালোবাসতেন তিনি। সেই ক্রিকেট খেলতে খেলতেই

পাড়ি দিলেন না ফেরার দেশে।প্রতিবেদনে বলা হয়, অলরাউন্ডার বসন্ত আহমেদাবাদের কাছে একটি ডেন্টাল কলেজের মাঠে স্থানীয় ক্রিকেট প্রতিযোগিতার একটি ম্যাচ খেলছিলেন। বল করার এক পর্যায়ে প্রথমে বুকে অস্বস্তি অনুভব করেন তিনি।

পরে ব্যথা শুরু হলে সতীর্থ ও আয়োজকরা প্রথমে তাকে ডেন্টাল কলেজে নিয়ে যান। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা দ্রুত কমতে থাকায় তাকে স্থানীয় সোলা সিভিল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসা শুরু হলেও বসন্তকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তীব্র হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ায় মৃত্যু হয়েছে বসন্তের। বস্ত্রপুরের এই বাসিন্দার স্ত্রীও রয়েছেন।গত ১০ দিনে বসন্তের আগে দুই ক্রিকেটার রাজকোটের বাসিন্দা প্রশান্ত ভারোলিয়া

(২৭) এবং সুরাতের বাসিন্দা জিগ্নেশ চৌহান (৩১) মারা যান। সকলেরই মৃত্যু হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে হয়েছে। পর পর এমন ঘটনায় গুজরাটের ক্রিকেট মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।