কণ্ঠে ছিল আত্মবিশ্বাস এই দলটা সম্ভবত এশিয়ার সেরা ফিল্ডিং দল, আমি বাদে: সাকিব

প্রশ্নটা হলো ফিল্ডিং নিয়ে, কথা পুরো শেষ করার আগেই বলতে শুরু করলেন সাকিব আল হাসান। তার চোখেমুখে উচ্ছ্বাস, কণ্ঠে ছিল আত্মবিশ্বাস। সাকিব প্রশ্নের উত্তর শেষ করলেন নিজেদের এশিয়ার সেরা ফিল্ডিং দল দাবি করে। এরপর

কিছুক্ষণ থেমে মুচকি হেসে বললেন, ‘আমি বাদে’। বাংলাদেশের জন্য সব সময়ই বড় চিন্তার নাম ফিল্ডিং। কিন্তু ইংল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করা সিরিজে দেখা গেছে একেবারেই ব্যতিক্রম। দুর্দান্ত সব ক্যাচ, স্ট্যাম্পিং ও ফিল্ডিং করেছেন দলের ফিল্ডাররা।

তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতেও যেমন মেহেদী হাসান মিরাজের বাটলারকে করা রান আউট মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে ম্যাচের। এর আগে দুর্দান্ত স্ট্যাম্পিং করে ফিল সল্টকে আউট করেছেন লিটন দাস। আজ মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে প্রথম প্রশ্নেই ফিল্ডিংয়ের

প্রশংসায় পঞ্চমুখ সাকিব বলেছেন, ‘তিনটা ম্যাচেই আমার মনে হয় অসাধারণ ফিল্ডিং করেছি। যেটা আমাদের বিশেষত টি-টোয়েন্টি ম্যাচে যেখানে ২-৪-১০-১৫-২০ রান পার্থক্য গড়ে দেয়, ওই জায়গাতে আমরা এবার অনেক বড় একটা টিক মার্ক দিয়েছি।’

দলের ফিল্ডিং নিয়ে পরে আরেক প্রশ্নে টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক বলেন, ‘অবশ্যই! এটা (সিরিজে বাংলাদেশের ফিল্ডিং) সাধারণ যে কোনো মানুষেরই চোখে পড়েছে। তিন ম্যাচেই যে ধরনের ফিল্ডিং আমরা করেছি। ইংল্যান্ড এত ভালো ফিল্ডিং দল।

আমার মনে হয়, আমরা তাদের থেকে ভালো ফিল্ডিং করেছি। সেই জায়গা থেকে অনেক বড় একটা টিক মার্ক।’তিনি আরও বলেম, ‘আমি যদি সবকিছু বিবেচনায় রাখি, আমাদের সবচেয়ে বড় উন্নতি হয়েছে ফিল্ডিংয়ে। যেটা আমাদের

সবসময়ই করা উচিত। আমাদের দলের অন্তত পরিকল্পনা আছে, আমরা যেন ফিল্ডিংয়ে এশিয়ার সেরা দল হতে পারি। আমার মনে হয় না, আমরা খুব বেশি দূরে আছি। এই দলটা সম্ভবত এশিয়ার সেরা ফিল্ডিং দল…আমি বাদে যদিও। ’