এমবাপ্পের যে রেকর্ড ভেঙ্গে মেসির কাঁধে নিঃশ্বাস ফেলালেন হল্যান্ড

ফুটবল বিশ্বে এমন ঘটনা খুবই কম দেখা যায়। এক ম্যাচে একটা-দুইটা নয়, গুনে গুনে মোট ৫টি গোল করেছেন ফুত্নল্ল বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটির স্ট্রাইকার আর্লিং হলান্ড। এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক ম্যাচে ৫ গোল

করেছেন তিনি, তাও আবার মাত্র ৩৫ মিনিটে।এরপর ম্যানসিটির কোচ পেপ গার্দিওলা তাকে খেলা থেকে তুলে নেন। পরে আফসোস করে হলান্ড বলেছেন কোচ তাকে তুলে না নিলে ডাবল হ্যাটট্রিক হতো। এই আসরের এই ম্যাচে ৫ গোল করে

কিলিয়ান এমবাপ্পের রেকর্ড ভেঙেছেন ম্যানচেস্টার সিটির এই স্ট্রাইকার হলান্ড।শুধু তাই নয় লিওনেল মেসিকেও ছুঁয়ে ফেলেছেন নরওয়ের স্ট্রাইকার। তার দাপটে আরপি লিপজিগকে ৭-০ (দুই পর্ব মিলিয়ে ৮-১) গোলে হারিয়েছে শক্তিশালী

ম্যানচেস্টার সিটি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে অল্প বয়সে ৩০ গোলের নজির গড়েছেন হলান্ড। তার আগে ফরাসি সুপারস্টার এমবাপ্পে ২২ বছর ৩৫২ দিন বয়সে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজের ৩০তম গোল করেছিলেন।নরওয়ের স্ট্রাইকার

হলান্ড নিজের ৩০তম গোল করলেন ২২ বছর ২৩৬ দিন বয়সে। শুধু এমবাপ্পে নন, মেসির মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এক ম্যাচে ৫ গোল করার নজিরও গড়েছেন হলান্ড। মেসি ও লুইস আদ্রিয়ানো তার আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ৫ গোলের

নজির গড়েছিলেন। রেকর্ড ছাড়াও চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩৯টি গোল করলেন হলান্ড। কোথায় থামবেন কে জানে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর ম্যাচে লিপজিগের বিপক্ষে মাত্র ৬২ মিনিট মাঠে ছিলেন হলান্ড। তবে

৫ গোল করার জন্য নিয়েছেন মাত্র ৩৫ মিনিট।২২ মিনিটে বেঞ্জামিন হেনরিখস বক্সের মধ্যে হ্যান্ডবল করলে পেনাল্টি পায় সিটি। সেটা থেকে প্রথম গোল করেন হলান্ড। এরপর ৩০ মিনিটে দ্বিতীয় আর প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে নিজের হ্যাটট্রিক

পূর্ণ করেন হলান্ড। দ্বিতীয়ার্ধে ৫৪ ও ৫৭ মিনিটের মাথায় আরও দুটি গোল করেন তিনি। ৫ মিনিট পরেই গার্দিওলা তাকে তুলে নেন।হলান্ড ম্যাচ শেষে বলেন, ‘আমি ডাবল হ্যাটট্রিক করতে পারতাম। কিন্তু আমাকে তুলে নেওয়া হলো। এখন আমি আর

কী করব?’ তবে সিটি কোচ গার্দিওলা দারুণ প্রশংসা করেছেন হলান্ডের, ‘৬০ মিনিটে ৫টি গোলমুখের কথা নয়। যদি ও ৯০ মিনিট খেলত তা হলে হয়তো আরও গোল করতে পারত। কিন্তু এখন এটাই যথেষ্ট।’ তিনি আরও বলেন, ‘হলান্ড অসাধারণ। ওর শক্তি, ওর মানসিক দক্ষতার কোনো তুলনা হয় না। সে কারণেই এতটা ধারাবাহিকভাবে ও খেলতে পারছে।’