এবার ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ আফিফ-সাইফদের ৯ উইকেটে উড়িয়ে ফাইনালে ভারত

এশিয়ান গেমস হলেও জাতীয় দলে খেলা একাধিক খেলোয়াড় এবং ঘরোয়া দলে নিয়মিত পারফর্ম করা খেলোয়াড় নিয়েই গড়া হয়েছিল এশিয়ান গেমস উপলক্ষে বাংলাদেশের দল। তবে টুর্নামেন্টে বাংলাদেশি সমর্থকদের হতাশ করে সেমিফাইনাল থেকেই ফিরলেন সাইফ হাসান-আফিফ হোসেনরা।

র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে থাকায় এই টুর্নামেন্টে সরাসরি কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ। সেখানে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে প্রায় হারতে বসেছিল দল। শেষ পর্যন্ত ২ রানের কষ্টার্জিত জয়ে ওঠে সেমিফাইনালে।

ভারতের বিপক্ষে সেমিফাইনালেও সেই একই ব্যাটিং ব্যর্থতার গল্প। প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৯৬ রান করতে পারে বাংলাদেশ। যা ৬৪ বল ও ৯ উইকেট হাতে রেখে অনায়াসেই পেরিয়ে যায় ভারত।

বাংলাদেশের ব্যাটারদের মধ্যে দুই অঙ্কের রানের দেখা পেয়েছেন কেবল তিনজন। এর মধ্যে ৩২ বলে পারভেজ হোসাইন ইমনের করা ২৩ ও জাকের আলীর করা ২৯ বলে ২৪ রান কোনোভাবেই টি-টোয়েন্টি সুলভ নয়।

লজ্জাজনক হারের পরও ইতিহাস গড়ল ইংল্যান্ড
বিশ্বকাপ-২০২৩
লজ্জাজনক হারের পরও ইতিহাস গড়ল ইংল্যান্ড
বিস্তারিত পড়ুন
ব্যাটিংয়ে নেমে কোনো রান করার আগেই প্রথম উইকেট হারায় ভারত। যশস্বী জয়সোয়ালকে কোনো রান করার আগেই ফেরান রিপন মণ্ডল। তবে এরপর বাংলাদেশি বোলারদের ওপর ঝড় বইয়ে দেন অধিনায়ক রুতুরাজ গাইকোয়াড এবং তিলাক ভার্মা। রুতুরাজ ২৬ বলে ৪০ রানে এবং তিলাক ২৬ বলে ৫৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

রিপন মণ্ডল, সাইফ হাসান, মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী কিংবা রাকিবুল হাসান; কেউই ইকোনমি দশের নিচে রাখতে পারেননি। কেবল আফিফ হোসেন ২ ওভার বল করে ৯ রান দিয়েছেন।

এমএস