‘উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে’ দিয়ে ম্যাচ হারের দায়ে মুস্তাফিজের সমলোচনায় ভারত জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার

দি’ল্লী ক্যা’পি’টা’ল’সে’র চ’তু’র্থ প’রা’জ’য়ে’র পে’ছ’নে ডে’ভি’ড ও’য়া’র্না’রে’র অধি’না’য়’ক’ত্ব ও পে’সা’র মু’স্তা’ফি’জু’র র’হ’মা’নে’র দা’য় দে’খ’ছে’ন ভা’র’ত জা’তী’য় দ’লে’র সা’বে’ক ক্রি’কে’টা’র ম’নো’জ তি’ও’য়া’রি।প্র’থ’ম ও’ভা’রে বা’জে ক’রা’র প’র প”রে’র দু’টি ও’ভা’র কী দু’র্দা’ন্তই না ক’রে’ছে’ন

মু’স্তা’ফি’জ। দ্বি’তী’য় ও’ভা’রে’ দু’ই ও তৃ’তী’য় ও’ভা’রে ৮! স’ব’মি’লি’য়ে দি’ল্লী’কে ম্যা’চে ফে’রা’ন তি’নি। সে’ই স’ঙ্গে নে’ন রো’হি’তে’র উ’ই’কে’ট’ও। ত’বে ১৯’ত’ম ও’ভা’রে গ্রী’ন ও ডে’ভি’ড দু’টো ছ’য় হাঁ’কি’য়ে ম্যা’চ নি’জে’দে’র নি’য়’ন্’ত্রণে নি’য়ে নে’ন।মু’স্তা’ফি’জে’র স্লো’য়া’র যে কা’জে

লা’গে’নি তা ব’লা যা’বে না। ত’বে ঐ দু’টি ব’লে’র জ’ন্য ম’নো’জ তি’ও’য়া’রি তাঁ’র স’ম’লো’চ’না ক’র’লে’ন। আ’ই’পি’এ’লে’র ম্যা’চ নি’য়ে ক্রি’ক’বা’জে’র এ’ক অ’নু’ষ্’ঠানে তি’নি ব’লে’ন,“মু’স্’তা’ফি’জ যে ধ’র’ণে’র বো’লা’র, ও কা’টা’র ক’রে… এ’টা য’খন’ আ’প’না’র প্র’ধা’ন অ’স্ত্র হ’বে

ত’খ’ন এ’টি’কে আ’প’না’র স’ঠি’ক জা’য়’গা’য়’ও ফে’ল’তে হ’বে। কা’র’ণ ব্যা’ট’স’ম্’যা’ন প্র’থ’ম থে’কে’ই প্র’স্তু’ত ছি’ল যে হা’ল’কা শ’র্ট ব’ল পে’লে’ই মা’র’ব আ’মি। গ্রি’ন যে ছ’য়’টা মে’রে’ছে’ন সে’টা সে পে’ছ’নে’র ব’ল থে’কে মে’রে’ছে’ন এ’বং ডে’ভি’ড যে ‘ছ’য়’টা’ মে’রে’ছে’ন সে-ও পে’ছ’নে’র

বল থেকে মেরেছে।”তিনি আরও যোগ করেন, “বোলিংয়ে কিছু বৈচিত্র্য আনতে পারত সে। ওয়াইড লেন্থে বা ওপর-নিচুতে করার চেষ্টা করতে পারত। বল যখন সঠিক লেন্থে পড়বে না তখন রাউন্ড দ্য উইকেটে এসেও করতে পারতেন।

আমরা বাইরে থেকে বলতে পারি যে- এটা করি উচিত, ওটা করা উচিত। আমার কাছে সব সময় মনে হতো বোলার যখন চাপে থাকে তখন কেনো অ্যাঙ্গেল পরিবর্তন বা তৈরি করে না। একজন ব্যাটসম্যান যখন বুঝতে পারবে সে কী ধরণের

বল মোকাবিলা করতে যাচ্ছে, তখন কাজটা সহজ হয়ে যায়।”শুধু মুস্তাফিজই নয়, তিনি সমলোচনা করেছেন ওয়ার্নারেরও। তবে ব্যাটসম্যান ওয়ার্নারের চেয়ে অধিনায়ক ওয়ার্নারের দায়টা বেশি দেখছেন তিওয়ারি। প্রথম দুই ওভারে যখন পেসাররা

রান দিচ্ছিল তখন কেনো তৃতীয় ওভারেও পেসার আনলেন ওয়ার্নার।“আমি আগেই বলেছি অধিনায়কত্বে হালকা ভুল থাকলে ম্যাচটি ফসকে যাবে। আমার কাছে মনে হয়েছে ওয়ার্নারের অধিনায়কত্বে ভুল ছিল। কারণে প্রথম ওভারে আসল ১৪ রান।

দ্বিতীয়টি পেসারের ওভারে আসল ১৩ রান। তৃতীয় ওভারও ছিল পেসারের যিনি কিনা ১৫ রান দিয়েছেন। প্রথম পাওয়ার-প্লেতেই ম্যাচ শেষ হয়ে গেছে অর্ধেক। মুম্বাই যখন দেখছে তাঁরা পেসারদের খেলছেন তখন তো খুশি হয়ে গিয়েছিলেন তাঁরা।”

অবশ্য ওয়ার্নারের জায়গায় ধোনি অধিনায়ক থাকলে পরিস্থিতি ভিন্নরকম হতো বলে দাবি করেছেন মনোজ তিওয়ারি। তবে সেই সঙ্গে মাঠে প্রতিপক্ষের চেয়ে যে একধাপ এগিয়ে থাকতে হয় অধিনায়ককে সেটিও বললেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের এই সাবেক ক্রিকেটার।

“যখন স্পিনার আনলেন ওয়ার্নার তখন মুম্বাইয়ের ব্যাটসম্যানরা ক্রিজে থিতু হয়ে গেছেন। স্পিনারের ওভারে একটি ক্যাচও উঠেছিল ইশানের। কিন্তু অধিনায়কত্বের ভুলের কারণে স্লিপে ফিল্ডার রাখা হয়নি। ম্যাচে আপনি একধাপ এগিয়ে না থাকলে এগোতে পারবেন না। একই বোলার আপনি ধোনিকে দিয়ে দেখুন, ও যদি ম্যাচ জেতাতে না পেরে তাহলে আমি এই অনুষ্ঠান ছেড়ে ঘরেই বসে থাকব।”