ইংল্যান্ডের বাংলা ধোলাই করে মুস্তাফিজের সেই ওভার নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন, সাকিব

৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ ও৩ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার জন্য ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল এখন বাংলাদেশে। ইংল্যান্ডে এই সফরে ইতিমধ্যে শেষ হয়ে গেছে ওয়ানডে সিরিজ টি-টোয়েন্টি সিরিজ এর প্রথম দুটি ম্যাচ। ওয়ানডে সিরিজের প্রথম

দুই ম্যাচে দারুণভাবে হারে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এবং শেষ ওয়ানডেতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ। সেই সুবাদে ওয়ানডে সিরিজ বাংলাদেশের কাছ থেকে হাত ছাড়া হয়ে যায়।তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। সিরিজের

তিনটি ম্যাচে দুর্দান্ত জয় তুলে নেয় বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে। মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ ১৪ মার্চ সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ সময় বিকাল তিনটায় মাঠে নেমেছিল

ইংল্যান্ড এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শুধু সিরিজই নয় বরং ইংলিশদের ঘরের মাঠে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবিয়েছে সাকিব আল হাসানের দল। যদিও সংবাদ সম্মেলনে এসে সাকিব জানিয়েছে, বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের

হোয়াইটওয়াশের কথা চিন্তা করেননি।দিনের শুরুটে টস ভাগ্য পক্ষে যায়নি বাংলাদেশের। আগে ব্যাটিংয়ে নেমে অবশ্য স্বস্তির শুরু এনে দিয়েছিলেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও রনি তালুকদার। দুজনে ওপেনিং জুটিতে যোগ করেন ৫৫ রান।

এরপর লিটন ও নাজমুল হোসেন শান্ত মিলে আরও ৮৪।অবশ্য শেষদিকে ইংলিশ বোলারদের দারুণ বোলিংয়ে শেষ পর্যন্ত ২ উইকেট হারিয়ে ১৫৮ রানের পুঁজি পায় টাইগাররা। মিরপুরের উইকেটে এমন লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতে ফিল

সল্টকে হারালেও ডেভিড মালান ও জস বাটলারের ব্যাটে বেশ ভালোভাবেই জবাব দিচ্ছিল ইংলিশরা।১৩ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ডের নামের পাশে তখন ১০০ রান। এমন অবস্থায় ম্যাচ বাংলাদেশের হাতের মুঠো থেকে বেড়িয়ে গেছে মনে হলেও

ঘুরে দাঁড়াতে সময় নেয়নি বাংলাদেশ। ১৪তম ওভারে বোলিংয়ে এসে প্রথম বলেই বাটলারকে উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানান মুস্তাফিজ। পরের বলে মেহেদী হাসান মিরাজের ডিরেক্ট থ্রোতে রান আউট মালান। আর তাতেই ছন্দ পেয়ে যায় বাংলাদেশ।

টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও মনে করেন ম্যাচের মোড় বদলে গেছে এখানেই।সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ওই (১৪তম) ওভারে দুই সেট ব্যাটার আউট হয়ে যাওয়ায় ম্যাচ পুরোপুরি বদলে গেছে। সেখান থেকে আমরা মোমেন্টাম পেয়ে

যাই এবং তাদেরকে (ইংল্যান্ড) চাপে রাখতে থাকি। আমি মনে করি, মোস্তাফিজ চমৎকার ছিল আজকে। চার ওভারে সে মাত্র ১৪ রান দিয়েছে। অবিশ্বাস্য ভূমিকা রেখেছে সে এই দলের জন্য।’সিরিজ জুড়েই দারুণ ফিল্ডিং করে নজর কেড়েছেন

বাংলাদেশের ফিল্ডাররা। এই সিরিজে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় পরিবর্তন এটাকেই ধরছেন সাকিব। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, আমরা এই টি-টোয়েন্টি ভালো সিরিজে খেলেছি। বিশেষ করে, আমরা অত্যন্ত ভালো ফিল্ডিং করেছি এই তিন

ম্যাচে। এটাই হলো (এই সিরিজের) সবচেয়ে বড় পরিবর্তন।’আগামী বছরই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে বসছে টি-টোয়েন্ট বিশ্বকাপের আসর। সাকিব জানিয়েছেন ইংল্যান্ডকে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করেই আসন্ন এই বিশ্ব আসরের প্রস্তুতি

শুরু করেছে বাংলাদেশ। বিশেষ করে বোলারদের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন টাইগার অধিনায়ক।সাকিব বলেছেন, ‘সব বোলারই ভালো বল করেছে। তারা সব সময়ই ভালো করেছে। ব্যাটাররাও তাদের ভূমিকা রেখেছে। আগামী বছরের বিশ্বকাপকে সামনে রেখে সব মিলিয়ে ভালো শুরু হয়েছে। এখান থেকে আমরা ভালমতো এগিয়ে যেতে পারি।’