আসল রহস্য ফাঁসঃ যার ব্যাট দিয়ে ৫ ছক্কা মেরেছিল রিঙ্কু

গ’ত’কা’ল আ’ই’পি’এ’লে’র ১৬ ত’ম আ’স’রে এ’র ১৩ ত’ম ম্যা’চে, বাং’লা’দে’শ স’ম’য় বি’কা’ল ৪ টা’য় আ’ম’দা’বা’দে’র ন’রে’ন্দ্র মো’দী স্টে’ডি’য়া’মে ডি’ফে’ন্ডিং চ্যা’ম্পি’য়’ন গু’জ’রা’ট টা’ই’টা’ন’স এ’বং অ’ন্য’ত’ম শ’ক্তি’শা’লী দ’ল ক’ল’কা’তা না’ই’ট রা’ই’ডা’র্স এ’কে অ’প’রে’র

মু’খো’মু’খি হ’য়ে’ছি’ল। এ’ই ম্যা’চে ৫ ব’লে ক’ল’কা’তা’র জ’য়ে’র জ’ন্য দ’র’কা’র ২৮ রা’ন-এ’ম’ন স’মী’ক’র’ণ নি’য়ে কে’ই’বা বা’জি ধ’র’তো!ত’বে ক্রি’কে’ট বি’শ্বে এ’খ’ন প’র্য’ন্ত স্বী’কৃ’ত টি–টো’য়ে’ন্টি’তে এ’ত’দি’ন যা কে’উ দে’খে’নি, সে’টি’ই ক’রে দে’খা’লে’ন আ’ই’পি’এ’ল আ’স’রে’র

অ’ন্য’ত’ম শ’ক্তি’শা’লী দ’ল ক’ল’কা’তা না’ই’ট রাই’ডা’র্সে’র রিং’কু সিং। গ’ত’কা’ল গু’জ’রা’ট টা’ই’টা’ন্সে’র বিপ’ক্ষে ম্যা’চে’র শে’ষ ৫ ব’লে ৫ ছ’ক্কা মে’রে ক’ল’কা’তা’কে ৩ উ’ই’কে’টের অ’বি’শ্বা’স্য এ’ক জ’য় এ’নে দি’লে’ন। ক’মে’ন্ট্রি’ব’ক্সে ক্যা’রি’বী’য় ধা’রা’ভা’কা’র ই’য়া’ন বি’শ’প

থা’ক’লে নি’শ্চি’ত ব’ল’তে’ন, “রিং’কু সিং’-রি’মে’ম্বা’র দ্য নে’ই’ম।” ত’বে ক’ল’কা’তা’র স’ম’র্থক’ তো ব’টে’ই ক্রি’কে’ট ফ্যা’ন’দে’র হৃ’দয়ে’ই যে গেঁ’থে গে’ল না’ম’টা।আ’ই’পি’এ’ল এ’র ১৫ ত’ম আ’স’রে’র চ্যা’ম্পি’য়’ন দ’ল গু’জ’রাটে’র বি’রু’দ্ধে শ’নি’বা’র আ’ই’পি’এ’লে অ’বি’শ্বা’স্য ম্যা’চ

জিতিয়েছেন রিঙ্কু সিং। শেষ পাঁচ বলে পাঁচ ছক্কা মেরে জিতিয়েছেন কলকাতাকে। আইপিএল তো দূর, টি-টোয়েন্টিতেও এ রকম ম্যাচ আগে কবে দেখা গিয়েছে সন্দেহ রয়েছে। ম্যাচের পরেই রিঙ্কুর ব্যাটের কীর্তি ফাঁস করলেন নীতিশ রানা। জানা

গিয়েছে যে, যে ব্যাটে তিনি এমন অসম্ভব কাজকে সম্ভব করেছেন সেটা নাকি তাঁর নিজের ব্যাটই নয়। অন্যের ব্যাট নিয়ে খেলে এমন অবিশ্বাস্য কাজ করেছেন রিঙ্কু সিং। সেই ব্যাট কি তাহলে চুরি করেছিলেন তিনি?এ দিন রিঙ্কু সিং যে ব্যাট

দিয়ে ইতিহাস তৈরি করেছিলেন সেটি আসলে তাঁর নয়। হ্যাঁ, এই ব্যাটটি রিঙ্কুর সিং-এর নয়। এই ব্যাটটি আসলে হল দলের অধিনায়ক নীতিশ রানার। রানা নিজেই এ তথ্য প্রকাশ করেছেন। কেকেআর নিজেদের টুইটারে একটি ভিডিয়ো

পোস্ট করেছে যাতে নীতিশ রানা জানিয়েছেন যে তিনি এই ব্যাটটি রিঙ্কুকে দিতে চাননি।সেই ব্যাটের গল্পই শুনিয়েছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের অধিনায়ক নীতিশ রানা। ম্যাচের পর তিনিই এক ভিডিয়োয় এই রহস্য ফাঁস করেছেন। এই ব্যাট

দিয়েই আগের দুটো ম্যাচে খেলেছিলেন নীতিশ রানা কারণ এটি তাঁরই ব্যাট। সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে পুরো মরশুমই নাকি এই ব্যাটে খেলেছিলেন তিনি। গত বছরের শেষ চার-পাঁচটা ম্যাচও এই ব্যাটে খেলেছিলেন। তবে চলতি মরশুমের প্রথম

দুই ম্যাচে এই ব্যাটে খেলে তেমন রান আসেনি নীতিশের। ফ্লপ হওয়ার কারণেই ব্যাট পরিবর্তন করেন নীতিশ রানা। সেই সময়ে নাকি রিঙ্কু ব্যাটটা নীতিশের থেকে চেয়েছিল। তবে প্রিয় ব্যাটটি দিতে চাইনি নাইট ক্যাপ্টেন। কিন্তু রিঙ্কু যখন ব্যাট

করছিল তখন ভিতর থেকে কেউ এক জন তাঁকে এই ব্যাটটা নিয়ে এসে দেন। সেই সময়ে দেখে নীতিশ মনে করেছিলেন যে এটা তারই ব্যাট। তবে সেই সময়ে কিছু না বলে এবার ব্যাটের রহস্য ফাঁস করলেন তিনি।এই ভিডিয়োতে নীতিশ রানা বলেছেন,

‘এটা আমার ম্যাচ ব্যাট ছিল। এই ব্যাট হাতেই প্রথম দুই ম্যাচ খেলেছি। আমি পুরো টি-টোয়েন্টি সৈয়দ মুস্তাক আলিতে এই ব্যাট নিয়েই খেলেছি। গত বছর (আইপিএল) এই ব্যাট হাতে শেষ চার-পাঁচটি ম্যাচ খেলেছি। আজ আমি ব্যাট পরিবর্তন করে

ছিলাম। রিঙ্কু আমার কাছে এসে এই ব্যাটটা চেয়েছিল।’ নীতিশ এবার হেসে বললেন, ‘আমি দিতে চাইনি। কিন্তু ভিতর থেকে কেউ এই ব্যাট নিয়ে এসেছিল। এবং আমি অনুভব করেছি যে তিনি এটি বেছে নেবেন কারণ এটির একটি দুর্দান্ত পিক-আপ রয়েছে এবং এটি আমার ওজনের তুলনায় কিছুটা হাল্কা। আর এখন তো এই ব্যাটটা রিঙ্কুরই হয়ে গিয়েছে। এটা আর আমার রইল না।’