আব্দুর রাজ্জাকের কথার পরিপ্রেক্ষিতে দল থেকে বাদ পরা ইস্যুতে মুখ খুললেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ

এ’র আ’গে’ও দ’ল থে’কে বা’দ প’ড়’ছি’লে’ন মা’হ’মু’দু’ল্লা’হ রি’য়া’দ। ফি’রে’ও এ’সে’ছে’ন। দ’ল থে’কে খে’লো’য়া’ড়’দে’র বা’দ প’ড়া’টা স্বা’ভা’বি’ক বি’ষ’য়। কি’ন্তু মা’হ’মু’দু’ল্লা’হ’র এ’ই বা’দ প’ড়া’কে স’হ’জ’ভা’বে নি’তে পা’র’ছে না কে’উ।বা’র’বা’র ঘু’রে’ফি’রে আ’স’ছে তা’র প্র’স’ঙ্গ। কা’ল

রো’ব’বা’র (২ এপ্রিল) আ’রও এ’ক’বা’র উ’ঠে এ’লো সে’টি। এ’বা’র এ’ক’ই বি’ষ’য়ে ক’থা ব’ল’লে’ন বি’সি’বি’র অ’ন্য’ত’ম এ’ক’জ’ন নি’র্বা’চ’ক জা’তী’য় দ’লে’র সা’বে’ক স্পি’না’র আ’ব্দু’র’ রা’জ্জা’ক।বো’র্ড স’ভা’প’তি না’জ’মু’ল হা’সা’ন পা’প’ন থে’কে শু’রু ক’রে প্র’ধা’ন কো’চ চ’ন্ডি’কা

হাথুরুসিংহে ও নির্বাচক হাবিবুল বাশার—সবাই বলেছেন, মাহমুদুল্লাহকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেট নিয়ে ভাবছে বাংলাদেশ। সেই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে অনেককে খেলানো হবে, অনেককে বিশ্রাম দেওয়া হবে। রাজ্জাকের কাছে জানতে

চাওয়া হয়েছিল কবে শেষ হবে মাহমুদুল্লাহর এই বিশ্রাম?কিছুটা বিরক্তি নিয়েই রাজ্জাক বললেন, ‘এটাকে অত সিরিয়াস পর্যায়ে নেওয়ার কিছু নেই। সে আমাদের কাছে যেমন ছিল, তেমনই আছে। কিন্তু এটা হঠাৎ করে খুব বড় ইস্যু হয়ে গেছে।

একটা দলের স্বাভাবিক বিষয় হলো যারা ভালো খেলবে তারাই দলে থাকবে।’মাহমুদুল্লাহর দলের বাইরে থাকাটা বিশ্বকাপের অংশ, তা আরও একবার পরিষ্কার করলেন রাজ্জাকও। তিনি পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে বলেন, ‘ধরেন বিশ্বকাপের আগে সাকিব-

মাহমুদুল্লাহ বা ২/৩ জন খেলোয়াড় চোটে পড়লে তখন একেবারে অনভিজ্ঞ কাউকে খেলানো কি যৌক্তিক হবে?’মাহমুদুল্লাহকে নিয়ে নির্বাচকরা কোনো ধোঁয়াশা না রেখেই এগিয়ে চলছেন নিজেদের পরিকল্পনাকে সামনে রেখে। বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত

এই পর্যবেক্ষণ পর্বটা চালু রাখবে বাংলাদেশ, তা নিশ্চিত করেই বলা যায়। মাহমুদুল্লাহর ভাগ্যও ততদিন দুলবে পেন্ডুলামের মতো।এদিকে এই বিষয়ে মাহমুদুল্লাহর সাথে সাংবাদিকরা কথা বলতে গেলে মাহমুদুল্লাহ বলেন ‘আমি আমার পরিশ্রম দিয়ে

এখনো টিকে আছি। আর বিসিবি দলের জন্য যেটা ভালো মনে করবে সেটাই করবে।আমি এখনো নিজেকে ঠিক রেখেছি এবং চেষ্ট করছি” সাংবাদিকদের বাকি প্রশ্নের জাবাব না দিয়ে তিনি দ্রুত সময়ে নিজের স্থান ত্যাগ করেন। আর এই প্রশ্নের জবাব না দেওয়ায় অনেক কিছুর ইঙ্গিত দেয়।