আ’ইরিশদের বি’পক্ষে টি-২০ দলে ২ নতুন মুখ, নতুন বি’ত’র্কে’র মুখে বিসিবি নির্বাচক

পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফর করছে আয়ারল্যান্ড। সফরকারীদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শেষ হওয়ার আগেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা করেন। মুলার আসন্ন আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টিসিরিজের জন্য বুধবার দল ঘোষণা করেছে দেশের ক্রিকেট বোর্ড। এর আগে যে টিম ইংল্যান্ডকে চুনকাম করে ইতিহাস লিখেছে, সেই দলে করা হয়েছে তিনটি বদল। আর সেই টিম ঘিরেই শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক। দল নির্বাচন নিয়ে ঘিরে উঠেগিয়েছে নানা প্রশ্ন।ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেলার সুবাদে দুই নতুন মুখকে দলে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এমন প্রশ্ন দেশের ক্রিকেট ভক্তদের মাঝে। বিসিবি ঘোষিত এই দলে প্রথম বারের মতো জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন জাকের আলি অনিক এবংরিশাদ হোসেন। দলে ফিরেছেন শোরিফুল ইসলামও। এ দিকে বাদ পড়েছেন আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, তানভীর হোসেনরা।তবে ঠিক কোন কারণে জাকের এবং রিশাদকে জাতীয় দলে নেওয়া হয়েছে, সেই বিষয়ে প্রধান বাংলাদেশক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর দাবি, ‘জাকের আলিকে আমরা ঘরোয়া ক্রিকেটে এবং এ দলের হয়ে ভালো পারফরম্যান্স করার কারণে সুযোগ দিয়েছি। শরিফুল ইসলাম ইনজুরির কারণে দলের বাইরে ছিল। আবার ও

ফিট হয়ে দলে ফিরেছে।’জাকের সত্যিই ঘরোয়া ক্রিকেটে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছেন। বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে টানা তিনটি শতরান করেছেন। ছ’ইনিংসে তাঁর রান ৪৯২। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স দলে ছিলেন, যারা এ বার বিপিএল জিতেছে। এ দিকে

রেজাউরের জায়গায় দলে এসেছেন শোরিফুল। তিনি আবার ২০২১-এর পর থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেই খেলেননি। আফিফের বাদ পড়া অবশ্য কিছুটা বিস্ময়কর। দেশের হয়ে টানা ৬১টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি।তবে সবচেয়ে মজার বিষয় হল,

গত কয়েক বছর ধরেই জাতীয় দলের আশপাশে ঘোরাফেরা করছিলেন রিশাদ। কিন্তু দলে সুযোগ পাচ্ছিলেন না। ঘরোয়া ক্রিকেটেও সুযোগ মিলছিল না সে ভাবে। দেশের বেশির ভাগ লেগ স্পিনারের অবশ্য একই হাল। শেষ বার দু’বছর আগে

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলেছিলেন রিশাদ। এই বছর একটি প্রথম শ্রেণির প্রতিযোগিতায় মাত্র ৫.১ ওভার বল করেছেন। সেই প্লেয়ারকে কেন নেওয়া হল জাতীয় দলে?রিশাদকে দলে নেওয়ার বিষয়ে নান্নু বলেন, ‘লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেনকে আমরা

একটু দেখতে চাইছি। যেহেতু আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা, আমাদের পরীক্ষা করার সুযোগ আছে। টিম ম্যানেজমেন্টও একজন লেগ স্পিনার চাইছিল। রিশাদ আমাদের এইচপি দলের সঙ্গে অনেক দিন কাজ করছে। যারা নতুন আসছে, আশা করছি

এটা তাদের জন্য নতুন প্ল্যাটফর্ম হবে।’ প্রসঙ্গত, তিন ম্যাচের সিরিজ শুরু হচ্ছে ২৭ মার্চ।সম্প্রতি টি-টোয়েন্টিতে বিশ্বজয়ী ইংল্যান্ডকে ঘরের মাঠে চুনকাম করেছে বাংলাদেশ। এ বার তাদের লক্ষ্য আয়ারল্যান্ড বধ। তবে তার আগেই বাংলাদেশের

দল নির্বাচন নিয়ে তীব্র জলঘোলা চলছে।নান্নুরের দাবি অবশ্য, ‘ইংল্যান্ডের সঙ্গে আমরা খুবই সফল একটা সিরিজ খেলেছি। আমাদের ক্রিকেটে যেটি মাইলফলক হয়ে গিয়েছে। এখন আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে কিছু প্লেয়ারকে দেখার সুযোগ

তৈরি হয়েছে। যে কারণে আমরা কিছু ক্রিকেটার পরিবর্তন করেছি। যারা এই সিরিজে নেই, তারা চোখের আড়াল হবে না। তাদের জন্য সুযোগ আসবে। আমরা বিশ্বকাপের কথা ভেবে যে প্রস্তুতি নিচ্ছি। তার জন্যই কিছু পরীক্ষানিরীক্ষা করতে হচ্ছে।