অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, ২ বছর পেরোতে না পেরোতেই অবসর ভেঙ্গে সবাইকে অবাক করে আবারও পাকিস্তান দলে ফিরতে যাচ্ছেন আমির

আ’ন্ত’র্জা’তি’ক ক্রি’কে’ট থে’কে অ’ব’স’রে’র দু’ই ব’ছ’র প’র আ’বা’র’ও পা’কি’স্তা’ন দ’লে ফি’র’তে পা’রে’ন মো’হা’ম্ম’দ আ’মি’র। পা’কি’স্তা’ন ক্রি’কে’ট বো’র্ডে’র (পিসিবি) এ’ক’জ’ন নি’র্বা’চ’ক এ বি’ষ’য়ে তাঁ’র স’ঙ্গে যো”গা’যো’গ ক’রে’ছে’ন ব’লে খ’বর দি’য়ে’ছে পা’কি’স্তা’নের সং’বা’দ’মা’ধ্যম।

আ’ন্ত’র্জা’তি’ক ক্রি’কে’টে ফি’র’তে আ’মি’র’কে ক’থা ব’লা’য় সং’য’ত হ’ও’য়া’র প’রা’ম’র্শও দে’ও’য়া হ’য়ে’ছে।৩০ ব’ছ’র ব’য়’সী আ’মি’র আ’ন্ত’র্জা’তি’ক ক্রি’কে’ট থে’কে অব’স’রে’র ঘো’ষ’ণা দে’ন ২০২০ সা’লে’র ডি’সে’ম্ব’রে।কা’র’ণ হি’সে’বে ত’খ’ন’কা’র বো’র্ড ও কো’চিং স্টা’ফ’দে’র দ্বা’রা

‘মানসিক অত্যাচারে’র অভিযোগ আনেন তিনি। পরবর্তী সময় জানান, কোচের পদ থেকে মিসবাহ উল হক ও ওয়াকার ইউনিস এবং পিসিবি চেয়ারম্যানের পদ থেকে রমিজ রাজা সরে গেলে আবার জাতীয় দলে ফিরতে পারেন।

পাকিস্তানের সামা টিভির খবরে বলা হয়েছে, সম্প্রতি পিসিবির একজন নির্বাচক আমিরের ব্যবস্থাপকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।তাঁকে বলা হয়েছে আমিরকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য বিবেচনা করা হচ্ছে। গণমাধ্যমে অপ্রয়োজনীয় বিবৃতি

বা বিতর্ক তৈরি না করে আমির যেন মাঠের ক্রিকেটে মনোযোগ দেন।আমিরের ম্যানেজার সামা টিভিকে জানান, ওই নির্বাচক বলেছেন পিসিবি বললে আমির যেন অবসরের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন। এ বছরের ওয়ানডে বিশ্বকাপে তাঁকে দরকার

হতে পারে বলেও ধারণা দেওয়া হয়েছে।আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়লেও নিয়মিতই ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন আমির। গত মাসে শেষ হওয়া পিএসএলে ৭ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ৯ উইকেট।তার আগে বাংলাদেশের মাটিতে বিপিএলে ১১

ম্যাচে নেন ১৪ উইকেট। ওই সময় বলেছিলেন, ভালো খেলে আবারও পাকিস্তান দলে ফেরার ইচ্ছা তাঁর।২০২১ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে মিসবাহ ও ওয়াকার আর ২০২২ সালের শেষ দিকে রমিজ রাজা পিসিবি থেকে বিদায় নেন। নাজাম

শেঠি পিসিবি চেয়ারম্যান পদে বসার পর আমিরকে পাকিস্তানের ন্যাশনাল হাই-পারফরম্যান্স সেন্টারে অনুশীলনের সুযোগ করে দেন।বছরের শুরুতে এক প্রশ্নের জবাবে আমিরকে নিয়ে নিজের মনোভাবও প্রকাশ করেন শেঠি, ‘অবসর থেকে

ফিরে এলে আমিরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার দরজা খোলা।ম্যাচ পাতানো নিয়ে আমি সব সময় শক্তিশালী অবস্থান নিয়েছি। আমি মনে করি, কোনো দোষী খেলোয়াড় ছাড় পেতে পারে না।তবে একই সময়ে কোনো খেলোয়াড় যদি তার

শাস্তি ভোগ করে ফেলে, তবে তাকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার অনুমতি দেওয়া উচিত।’আমিরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার আরেকটি কারণ হতে পারেন মিকি আর্থার। কিছুদিন আগে পাকিস্তান দলের পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ পাওয়া

এই দক্ষিণ আফ্রিকান ২০১৬ থেকে ২০১৯ মেয়াদে পাকিস্তানের প্রধান কোচ ছিলেন।ম্যাচ–পাতানোর সাজা খেটে ওই সময়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেন আমির। আর্থারের সঙ্গে বাঁহাতি এই পেসারের সখ্যও আছে।পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার

শোয়েব আখতার একবার আমিরকে পরামর্শ দিতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘কখনো ভালো সময় কাটবে, কখনো খারাপ।আমিরের বোঝা উচিত “বাবা” মিকি আর্থার তাকে বাঁচাতে সব সময় থাকবেন না।’ এবার সেই আর্থারই পাকিস্তান দলের দায়িত্বে,

যিনি ২০২৩ বিশ্বকাপের পর পাকিস্তান দলকে পূর্ণ মেয়াদে সময় দেবেন বলে জানিয়েছেন।সব মিলিয়ে আমিরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা সময়ের ব্যাপার বলেই মনে হচ্ছে, দশ দিন পরেই যার বয়স ৩১ পূর্ণ হতে যাচ্ছে।