অবিশ্বাস্য! ফুটবলের রাজপুত্র মেসিকে নিয়ে দারুণ সুখবর দিল বসুন্ধরা গ্রুপ

আর্জেন্টিনাকে ঢাকায় আনার নতুন হাওয়া শুরু হয়েছে আবার। এবারের হাওয়ায় শরিক বসুন্ধরা গ্রুপ। তাদের কাছে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ঢাকায় আনার প্রস্তাব নিয়ে এসেছে ‘ওয়ার্ল্ড ইলেভেন’।তাতে ইতিবাচক সাড়া দিয়ে বসুন্ধরা গ্রুপও

বসছে আলোচনার টেবিলে। এর আগে বাফুফেও সদ্য বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনাকে ঢাকায় এনে প্রীতি ম্যাচ খেলানোর চেষ্টা করেছিল।এ নিয়ে বিভিন্ন খবরও হয়েছিল। ওই গুঞ্জন মিলিয়ে যাওয়ার পর ‘ওয়ার্ল্ড ইলেভেন’-এর সুবাদে উঠেছে মেসির

সম্ভাব্য ঢাকা সফরের নতুন হাওয়া।এটি ফিফার লাইসেন্সধারী আর্জেন্টিনার একটি ম্যানেজমেন্ট কম্পানি, যারা বিশ্বব্যাপী ফুটবল প্রীতি ম্যাচ আয়োজনের কাজ করে। তাদের একটি প্রতিনিধিদল গত ১৩ মার্চ ঢাকায় এসে প্রস্তাব দিয়ে গেছে

বসুন্ধরা কিংসের প্রেসিডেন্ট ইমরুল হাসানকে।তাদের দাবি অনুযায়ী, মেসিদের ঢাকায় প্রীতি ম্যাচ খেলার ব্যবস্থা করতে পারবে তারা। সেই দলে ছিলেন আর্জেন্টিনা-বাংলাদেশ চেম্বারের সভাপতি তালুকদার আলিম আল রাজি,

আরতুরো আলেহান্দ্রো স্টানিক নামের এক আইনজীবী ও আমেরিকাপ্রবাসী বাংলাদেশের সাবেক ফুটবল তারকা শহীদুল ইসলাম চৌধুরী শান্টু। সাবেক এই গোলরক্ষককের কম্পানি ‘গ্লোবাল’ কাজ করে ‘ওয়ার্ল্ড ইলেভেনের’ সঙ্গে।

তাঁদের দেওয়া বিস্তারিত প্রস্তাবে ঢাকায় দুটি ম্যাচের কথা বলা হয়েছে। একটি ম্যাচ মরক্কো বা অন্য কোনো নামি দলের সঙ্গে খেলবে মেসির দল। তাদের আরেকটি ম্যাচের প্রতিপক্ষ নির্ধারণের ভার ছেড়ে দিয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের ওপর।

ম্যাচ দুটির ভেন্যু হবে বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনা। এটিকে পূর্ণাঙ্গ স্টেডিয়ামে রূপ দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে বেশ আগে থেকে। এখন চলছে ফ্লাডলাইট বসানোর কাজ।তবে বসুন্ধরা গ্রুপের সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইমরুল হাসান বলছেন,

‘মাঠ কোনো ইস্যু নয়, আর্জেন্টিনা আসা চূড়ান্ত হলে সব প্রস্তুত হয়ে যাবে;কিন্তু সবই এখন আলোচনার টেবিলে। তারা একটা প্রস্তাবনা দিয়েছে, এটার নানা দিক নিয়ে আমরা নিজেরা আলোচনা করছি। এরপর দুই পক্ষ এক জায়গায়

পৌঁছাতে পারলে আর্জেন্টিনার ঢাকায় আসার ক্ষেত্র তৈরি হবে।’আর্জেন্টিনা ও প্রতিপক্ষ দলকে ঢাকায় আনতে কী পরিমাণ অর্থ ব্যয় হবে, সেটাও সবিস্তারে জানিয়ে দিয়েছে তারা। প্রস্তাবনায় মেসিসহ দলের অন্য তারকাদের উপস্থিতি

নিশ্চিত করেছে।সঙ্গে ৮৬ জনের বিশাল বহর আসার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে। তাঁদের আসা-যাওয়ার বিমানভাড়া, হোটেলভাড়া—সবই বহন করতে হবে আয়োজকদের।টিকিট এবং টিভি সম্প্রচার স্বত্ব থাকবে আয়োজকদের। এ ছাড়া

তারা দেখিয়েছে আয়ের বিভিন্ন খাত—লিওনেল মেসির সঙ্গে ভিআইপিদের ডিনার, ফটোসেশনসহ হতে পারে নানা ধরনের আয়োজন।এসব নিয়ে ইমরুল হাসান অত ভাবছেন না। তিনি বড় সুখবরটা এরই মধ্যে পেয়ে গেছেন বসুন্ধরা গ্রুপের

চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহানের কাছ থেকে, ‘আসলে আমাদের গ্রুপের চেয়ারম্যান মহোদয় আর্জেন্টিনার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।সুতরাং এখন আমরা আলাপ চালিয়ে যেতে পারি। কিছু বিষয়-আশয় নিয়ে তাদের

(ওয়ার্ল্ড ইলেভেন) সঙ্গে আমাদের কথা বলতে হবে। তা ছাড়া প্রস্তাবনার পাওয়ার পরঅন্তত একটা দ্বিপক্ষীয় সভা লাগবে সব কিছু বোঝার জন্য।’ সব কিছু ইতিবাচকভাবে এগোলে আগামী জুলাই বা আগস্টে কিংস অ্যারেনায় পড়তে পারে আর্জেন্টাইন ফুটবল রাজপুত্রের পদধূলি!