অবাক ক্রিকেট বিশ্ব, ইংলিশদের টি২০ বাংলা ওয়াশের পর, প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ইতিহাস গড়লেন সাকিব

তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশ সফর শেষ করছে ইংল্যান্ড। সিরিজ নিশ্চিত হলেও বিশ্রাম নেননি টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নেমেই ৪০০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ

খেলাদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় নাম লেখালেন সাকিব আল হাসান। বিশ্বের ১১তম ও এখনো পর্যন্ত বাংলাদেশের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে এই কীর্তি তার।সাকিবের আগে এই কীর্তি আছে কাইরন পোলার্ড, ডোয়াইন ব্রাভো, শোয়েব মালিক,

ক্রিস গেইল, রবি বোপারা, সুনিল নারাইন, আন্দ্রে রাসেল, ডেভিড মিলার, ড্যানিয়েল ক্রিশ্চিয়ান ও রোহিত শর্মার। এদিকে ৬২৩ ম্যাচ নিয়ে সবার উপরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাইরন পোলার্ড। ৫০০ বা তার বেশি ম্যাচ খেলেছেন ডোয়াইন

ব্রাভো ও শোয়েব মালিক।সাকিবের টি-টোয়েন্টি অভিষেক ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের হয়ে। আজকের আগে ৩৯৯ ম্যাচে তার নামের পাশে ৬৭১১ রান ও ৪৪৫ উইকেট। বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক টি-টোয়েন্টি খেলছেন বিশ্ব ঘুরে ঘুরে।

আইপিএল, পিএসএল, সিপিএল, বিগ ব্যাশ সহ প্রায় সব টি-টোয়েন্টি লিগেই খেলার অভিজ্ঞতা আছে টাইগার অলরাউন্ডারের। আইপিএলে লম্বা সময় কাটিয়েছেন কোলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে, খেলেছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদেও।

এবার অবশ্য ফিরেছেন কোলকাতাতেই। বিগ ব্যাশে খেলেছেন অ্যাডিলেড স্টাইকার্স, মেলবোর্ন রেনেগাডসে। পিএসএলে করাচি কিংস ও পেশোয়ার জালমির হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন। সিপিএলে ঠিকানা হয়েছিল বারবাডোস ট্রিডেন্টস, গায়ানা

অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স, জ্যামাইকা তালাওয়াশে। বিপিএলেও খেলেছেন ভিন্ন ভিন্ন দলে। ঢাকা ডায়নামাইটস, ঢাকা গ্ল্যাডিয়েতর্স, ফরচুন বরিশাল, জেমকন খুলনা, খুলনা রয়্যাল বেঙ্গলসের জার্সিতে দেখা গেছে তাকে।