অ’ব’শে’ষে ট’ন’ক ন’ড়ে’ছে বি’সি’বি ক’র্তা’দের, অ’ধি’না’য়’ক সা’কি’বে’র এ’ই ১’টি মা’ত্র প’রা’ম’র্শ মে’নে নি’তে না নি’তে’ই’ স”ফ’ল বি’সি’বি

দেশের ক্রিকেটে উইকেট বিতর্ক বেশ পুরনো। ঘরওয়ালীগের উইকেটের প্রসঙ্গ না তোলাটাই ভালো, ঘরোয়া লীগের অধিকাংশ উইকেটই যে প্রায় মরা অবস্থায় থাকে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও প্রায় এ ধরনের উইকেটেই খেলতে হচ্ছিল

টাইগারদের।সিরিজের পর সিরিজ যায় বিসিবি সফলভাবে সবই আয়োজন করে তবে উইকেট বিতর্ক থেকেই যায়।এমনকি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৬ সালে সেই ঐতিহাসিক জয়ের পর মিরপুরের উইকেট আইসিসির কাছ থেকে ডিমোরিট

পয়েন্ট পর্যন্ত পেয়েছিল।তবে অবশেষে টনক নড়েছে বিসিবি কর্তাদের, তারা এখন স্পোর্টিং উইকেট তৈরির ব্যাপারে উদ্বেগী হয়েছেন। যার ফল হাতেনাতেই পাচ্ছে টাইগাররা। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে টি টোয়েন্টিতে ধবল ধোলাইর

পর আইরিশদেরও ওয়ানডেতে ছাড় দেয়নি টাইগাররা।টাইগারদের এতসব সাফল্যের পেছনে অন্যতম কারণ স্পোর্টিং উইকেট। কিভাবে সাকিবের একটি প্রেস কনফারেন্স এবং পরামর্শ বিসিবিকে আদর্শ উইকেট তৈরিতে কিছুটা তাতিয়ে দিয়েছিল এটি নিয়েই আজকের এই সেগমেন্ট।